শীর্ষ সংবাদ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / স্বদেশ / জাতীয় সম্মেলনের কাউন্সিলর-ডেলিগেট কার্ড নিয়ে সিলেট আ. লীগে তদবির

জাতীয় সম্মেলনের কাউন্সিলর-ডেলিগেট কার্ড নিয়ে সিলেট আ. লীগে তদবির

img_20161013_235008

আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলকে ঘিরে সিলেটের স্থানীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরাজ করছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা। কাউন্সিলে যোগদান ও নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনে অংশ নিতে নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। ইতোমধ্যে কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে প্রেরণ করা হয়েছে সাংগঠনিক প্রতিবেদন।

আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১২ সালের ডিসেম্বরে। চার বছর পর আগামী ২২ ও ২৩ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন। আর কাউন্সিলকে ঘিরে দীর্ঘদিনের নিষ্ক্রিয় নেতাকর্মীরাও সক্রিয় হয়ে ওঠেছেন রাজনীতিতে। কাউন্সিল সফলে স্থানীয় নেতারাও শুরু করেছেন তোড়জোড়। সম্মেলনে নেতাকর্মীদের স্বত:র্স্ফুত অংশগ্রহণ নিশ্চিতে চলছে প্রস্তুতি।

শুধু উচ্ছ্বাস আর উদ্দিপনাই নয়, সম্মেলনে অংশ নেয়ার জন্য উদগ্রিব সিলেটের নেতাকর্মীরা। এজন্য চলছে কাউন্সিলর ও ডেলিগেট কার্ড পাওয়ার তদবিরও। সিলেট মহানগরের তুলনায় জেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলর-ডেলিগেটদের তালিকা অনেক বড় হওয়ায় মহানগরে তদবির বেশী লক্ষ্য করা গেছে। ইতোমধ্যে সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগে থেকে ৩৫ কাউন্সিলর ও প্রায় ৩০০ ডেলিগেটের তালিকা কেন্দ্রে প্রেরণ করা হয়েছে। অপরদিকে জেলা আওয়ামীলীগ থেকে ১৬৪ কাউন্সিলর ও প্রায় দেড় হাজার ডেলিগেটের তালিকা কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

সম্মেলনের ব্যাপারে সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, সারাদেশেই এখন আলোচনার বিষয় আওয়ামীলীগের জাতীয় সম্মেলন। সিলেট মহানগর আওমীলীগ এ সম্মেলণে স্বতস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করবে। ইতোমধ্যেই কাউন্সিলর- ডেলিগেটের তালিকা ও সাংগঠনিক প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। সম্মেলনের পুর্বে প্রচার মিছিলেরও আয়জন করা হয়েছে।

কাউন্সিলর- ডেলিগেট কার্ড নিয়ে তদবিরের ব্যাপারে সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন- দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রতি ২৫ হাজার নাগরিকের জন্য একজন কাউন্সিলর হবে। তাই সিলেট মহানগর ইউনিট থেকে ৩৫ জনকে কাউন্সিলর করা হয়েছে। অনেক নেতা কাউন্সিলর কার্ড পাওয়ার জন্য যোগাযোগ করলেও গঠনতন্ত্রের বাইরে কিছু করা যাবে না। তবে তাদের ডেলিগেটের তালিকায় রাখা হয়েছে।

জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পদক শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেন- কেন্দ্রীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে তৈরি করা হয়েছে জেলা ও উপজেলা শাখার সাংগঠনিক প্রতিবেদন। ইতোমধ্যে এই প্রতিবেদনগুলো কেন্দ্রে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রতিটি উপজেলা থেকেই কাউন্সিলর ও ডেলিগেট দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে ১৬৪জন কাউন্সিলর ও প্রায় দেড় ডেলিগেটের নাম পাঠানো হয়েছে। গঠনতন্ত্র মেনেই এগুলো করা হয়েছে। তদবির থাকলেও সেগুলো বিবেচনায় আসেনি।
দিব্য জ্যোতি সী

সিলেটভিউ/১৩ অক্টোবর ২০১৬/আমাদেরফেঞ্চুগঞ্জ।

আপনার মন্তব্য

Check Also

কুলাউড়ার ব্রাম্মনবাজার টু ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কে মোটরসাইকেলের মুখামুখি সংঘর্ষে নিহত ১ ও ২ জন আহত

এমরান আহমেদ :: কুলাউড়ার ব্রাম্মনবাজার টু ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কে বরমছাল মাদ্রাসা বাজারের সামনে মোটরসাইকেলের মুখামুখি সংঘর্ষে …